সুস্থতার পরও ১ মাস উপসর্গের আশঙ্কা! বলছে COVID রোগীদের নিয়ে সমীক্ষা


হাইলাইটস

  • করোনা ভাইরাস মানুষের শরীরে ভিন্ন প্রতিক্রিয়া দেখাচ্ছে। বিভিন্ন রকমের উপসর্গের অভিজ্ঞতা হচ্ছে মানুষের।
  • করোনা সেরে যাওয়ার এক মাস পরেও কোনও কোনও সংক্রমণ থেকে যায়। সম্প্রতি এমনই গবেষণায় দেখা গিয়েছে।
  • প্রাথমিক ভাবে সামান্য উপসর্গ দেখা গেলেও, তা পরে বড় আকার নিচ্ছে। কোভিড সেরে গেলেও তার প্রভাব থেকে যাচ্ছে।

এই সময় ডিজিটাল ডেস্ক: করোনা ভাইরাস মানুষের শরীরে ভিন্ন প্রতিক্রিয়া দেখাচ্ছে। বিভিন্ন রকমের উপসর্গের অভিজ্ঞতা হচ্ছে মানুষের। করোনা সেরে যাওয়ার এক মাস পরেও কোনও কোনও সংক্রমণ থেকে যায়। সম্প্রতি এমনই গবেষণায় দেখা গিয়েছে। প্রাথমিক ভাবে সামান্য উপসর্গ দেখা গেলেও, তা পরে বড় আকার নিচ্ছে। কোভিড সেরে গেলেও তার প্রভাব থেকে যাচ্ছে।

বিশেষজ্ঞদের মতে, করোনা ভাইরাসের জেরে প্রভাব পড়ছে। কখনও কখনও তা নিউমোনিয়ার আকার নিচ্ছে। কয়েকটি বিশেষ উপসর্গ দেখেই বোঝা যায়, কোভিড ফুসফুসের উপর দীর্ঘমেয়াদি নাকি স্বল্পমেয়াদি প্রভাব ফেলেছে। শ্বাসযন্ত্রে করোনা ভাইরাস দ্রুত ছড়িয়ে পড়তে থাকে। যার ফলে জোরে ও অনবরত কাশি হয়। শুধু শুকনো কাশি নয়। এক্ষেত্রে সাধারণ কাশিও দেখা যায় চানা ২-৩ সপ্তাহ ধরে। অর্থাৎ বোঝা যায় করোনা ফুসফুসের উপরে বড় প্রভাব ফেলছে।

দ্বিতীয়ত শ্বাসকষ্ট হলে বা অল্প পরিশ্রমেই হাঁপ ধরা থেকে বোঝা যায় যে ফুসফুসের উপরে প্রভাব ফেলেছে কোভিড। শ্বাসকষ্টের মাত্রা এমন জায়গায় পৌঁছয় যে ফুসফুসে অক্সিজেন পৌঁছয় না। করোনা থাকাকালীন যাদের অক্সিজেনের সাহায্য লাগছে এবং সেরে যাওয়ার পরেও কিছু সমস্যা থেকে যাচ্ছে তাঁদের ফুসফুসের উপর দীর্ঘমেয়াদি প্রভাব পড়ছে বলেই জানাচ্ছেন চিকিৎসকরা। এছাড়াও কোভিড সেরে গেলেও কিছু ক্ষেত্রে রোগীর বুকে ব্যথার থাকছে।

COVID চিকিৎসায় নজর কাড়ছে নবজাতকের নাড়ি! যা জানা জরুরি…

গবেষণায় দেখা গেছে, জানুয়ারী থেকে মে মাসের মধ্যে চিনের উহানে প্রথম শনাক্ত করা হয় ১,৭৩৩ রোগীদের। গবেষণায় উপস্থিত ছিলেন চিনের হাসপাতালের চিকিত্সকরাও। সেখানে রোগীদের ধৈর্য্যের মাত্রা, শারীরিক পরীক্ষা, হাঁটার পরীক্ষাও করা হয়। এর মধ্যে প্রায় ৪০০ রোগীদের পেশী দুর্বলতা দেখা গিয়েছে। এর মধ্যে তিন শতাংশের রাতে ঘুমের সময় অসুবিধা দেখা যায়। এদের মধ্যে ২৩ শতাংশ রোগীর মধ্যে উদ্বেগ বা হতাশা দেখা দিয়েছে।

প্রসঙ্গত, আগামী ১৬ জানুয়ারি থেকেই দেশে শুরু হচ্ছে করোনার টিকাকারণ। জানিয়ে দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। আর এরপরই রাজ্যবাসীকে বিনামূল্যে করোনা ভ্যাকসিন দিতে চায় সরকার, বিভিন্ন জেলার পুলিশ ও স্বাস্থ্যকর্তাদের লেখা চিঠিতে এমনটাই জানিয়েছেন এ রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। দেশে গত ২৪ ঘণ্টায় আরও ১৮ হাজারেরও বেশি মানুষ করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হলেন। শনিবারের থেকে এই সংখ্যাটা সামান্য বেশি। গত ২৪ ঘণ্টায় মৃত্যু হয়েছে ২০১ জনের। রবিবার সকালে প্রকাশিত মেডিক্যাল বুলেটিনে কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রক জানিয়েছে, দেশে গত ২৪ ঘণ্টায় আরও ১৮,৬৪৫ জনের শরীরে মিলেছে করোনাভাইরাস।

এই সময় ডিজিটালের লাইফস্টাইল সংক্রান্ত সব আপডেট এখন টেলিগ্রামে। সাবস্ক্রাইব করতে ক্লিক করুন এখানে।