বয়ফ্রেন্ডকেই বিয়ে করছেন? তার আগে এই ৬ অভিজ্ঞতা হয়েছে তো!


এই সময় জীবনযাপন ডেস্ক: দীর্ঘদিন যখন দুজনে প্রেম করেছেন, তখন আপনারা একে অপরের অভ্যেস ভালো করেই জানেন। কার কী পছন্দ, অপছন্দ সবটাই জানেন। কোন কোন বিষয় নিয়ে ঝগড়া হয় সেসবও জানা। কিন্তু প্রেম আর বিয়ের মধ্যে অনেক ফারাক আছে। এমন অনেক কিছুই আছে যা একসঙ্গে এক ছাদের তলায় না থাকলে বোঝা যায় না। দুজন দুজনকে সবচেয়ে ভালো চেনা যায় যদি কোথাও একসঙ্গে ঘুরতে যাওয়া হয়। যে কারণে বিয়ের আগে একসঙ্গে ঘুরতে যাওয়া, রাতে একসঙ্গে থাকা খুবই জরুরি। আগেকার দিনের সেই ধ্যান ধারণা থেকে সকলকেই বেরিয়ে আসতে হবে। সেই সঙ্গে দুজনের মানিয়ে গুছিয়ে নেওয়াও খুব প্রয়োজন। যদি কোনও খারাপ অভ্যেস থাকে দুজনকেই তা পরিবর্তন করতে হবে। তাই রইল কিছু টিপস। আশা করা যায়, আপনারা দুজন একসঙ্গে নিজেদের খুব ভালো একটা জীবন উপহার দিতে পারবেন।

খুব বেশি ঝামেলা হলে কীভাবে সামলান

সম্পর্কে ঝামেলা হতেই পারে। এমনও হয়েছে টানা পাঁচদিন কেউ কোনও কথা বলেননি। তারপর আবার সব ঠিক হয়ে গিয়েছে। কিন্তু এমন কিছু বিষয় নিয়ে আপনাদের মধ্যে ঝামেলা হয়েছে যা মিটবার নয়য়। আর তাই এই বিষয়গুলি নিয়ে আগে থেকেই কথা বলুন খোলাখুলি। বিয়ে করলেই সব ঠিক হয়ে যাবে এসব তত্ত্ব কথায় বিশ্বাস করবেন না। নিজেদের বনিবনা হলে তবেই বিয়ে।

একসঙ্গে ঘুরতে যান

একটা মানুষকে সবচেয়ে বেশি ভালো চেনা যায় একসঙ্গে ঘুরতে গেলে। কারণ তখন একসঙ্গে রাত্রিবাস হয়। এছাড়াও মানুষের মানসিকতাও ঘুরতে গেলে ধরা পড়ে। কারণ নতুন পরিবেশের সঙ্গে সকলকেই মানিয়ে নিতে হয়য। আর তাই দিন দুয়েকের ছুটি পেলেই বেড়িয়ে পড়ুন একসঙ্গে।

দায়িত্ব ভাগাভাগি করুন

বিয়ের আগে থেকেই দায়িত্ব ভাগ করে নিতে শিখুন। যদি দেখেন ছেলের প্রথম থেকেই দায়িত্ব নিতে আপত্তি তাহলে অবশ্যই একবার ভেবে দেখুন। এমনকী বয়ফ্রেন্ড বাড়ির সকলের প্রতিও কেমন কর্তব্য পালন করছেন তাও একবার দেখে নিন। ছেলে দায়িত্ববান তখনই বুঝবেন, যখন তিনি আপনার সঙ্গে বিভিন্ন কাজ ভাগাভাগি করে নিচ্ছেন। ধরা যাক গাছে জল দেওয়া, কিংবা একটা দিন আপনার পোষ্যকে দেখভাল। এসবই কিন্তু একজন দায়িত্বশীল মানুষের লক্ষণ।

অর্থনৈতিক চাপ ভাগাভাগি করে নিন

এখনকার যা পরিস্থিতি তাতে যদি দুজনই রোজগেরে না হন তাহলে খুবই মুশকিল। তাই ব্যাংক ব্যালেন্স, হিসেব এসব আগে থেকেই বুঝে নিন। এমনকী কোনও একজনের যদি অতিরিক্ত খরচের প্রবণতা থাকে তাহলে প্রথমে সেখানে রাশ টানুন। খরচ দুজনকেই বুঝেশুনে করতে হবে। কারণ সংসারটা দুজনের।

একসঙ্গে কিছু শখ মেটান

আঁকতে ভালোবাসেন? কিংবা গান গাইতে? তাহলে উইকেন্ডে গিটার হাতে বসে পড়ুন দুজনে। আর তার আগে সুন্দর করে বাড়ি সাজিয়ে নিন। খাবারের আয়োজনও নিজেরা করুন। কিংবা একসঙ্গে পছন্দের সিনেমা দেখুন। মোটকথা নিজেরাই নিজেদের শখপূরণ করুন।

লিভ টুগেদার

অনেকেরই এখনও এই শব্দটিতে আপত্তি আছে। অনেকেই ভাবেন বিয়ের আগে ছেলে-মেয়ে একসঙ্গে রাত্রিবাস করলেই মহাভারত অশুদ্ধ হয়ে যায়। সারাদিন থাক কিন্তু রাতে যেন না থাকে। এই ধারনা কিন্তু সবদিক দিয়ে ভ্রান্ত। বরং একসঙ্গে রাত কাটালেই অনেক কিছু নতুন করে চেনা যায়। তেমনই বিয়ের আগে অন্তত ১ বছর একসঙ্গে থাকুন। বিয়ের পর পস্তানোর থেকে আগে সিদ্ধান্ত নেওয়াই ভালো। একসঙ্গে একবছর থাকার পর তবেই বিয়ের সিদ্ধান্ত নিন।